ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৫ পৌষ ১৪২৫

পতনের ধাক্কায় দিশেহারা দুই কোম্পানির বিনিয়োগকারীরা

২০১৭ নভেম্বর ১০ ১১:৩৪:৩৩
পতনের ধাক্কায় দিশেহারা দুই কোম্পানির বিনিয়োগকারীরা

ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজারে হঠাৎ ছন্দপতনের ধাক্কা লেগেছে তালিকাভুক্ত দুই কোম্পানির শেয়ার দরে। চাঙ্গা বাজারে মুনাফার আশায় যারা কোম্পানি দুটির শেয়ার কিনেছিলেন, এক মাসের ব্যবধানে তিনভাগের একভাগ বা ৩৩ শতাংশ পুঁজি হারিয়ে তারা এখন দিশেহারা।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা যায়, গত এক মাসে ডিএসইতে দুই কোম্পানির শেয়ার দরে সবচেয়ে বেশি বিপর্যয় দেখা যায়। কোম্পানি ২টি হল-বিডিকম অনলাইন ও হাক্বানি পাল্প লিমিটেড। গত এক মাসে বিডিকম অনলাইনের শেয়ার দর কমেছে ৩৩ শতাংশ এবং হাক্কানি পাল্পের শেয়ার দর কমেছে ২৬ শতাংশ। প্রত্যাশিত লভ্যাংশ না দেয়ায় বিডিকমের শেয়ার দর তলানিতে এসে ঠেকেছে। আর লভ্যাংশ না দেয়ায় হাক্কানি পাল্পের শেয়ার দরে বিপর্যয় দেখা দিয়েছে।

বিডিকম: এক মাস আগে বিডিকম অনলাইনের শেয়ার দর ছিল ৪৩ টাকা। গত বৃহ্স্পতিবার কোম্পানিটির শেয়ার দর নেমে এসেছে ২৯ টাকায়। তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সম্ভাবনার কথা বিবেচনা করে লাভের আশায় যারা কেম্পানিটির শেয়ার কিনেছিলেন, তারা এখন উল্টো চিত্র দেখছেন। এক মাসের ব্যবধানে পাল্টে গেছে তাদের পোর্টফোলিও চিত্র। কোম্পানিটির শেয়ার কিনে তাদের পুঁজি কমে গেছে ৩৩ শতাংশ। এতে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন কোম্পানিটির বিনিয়োগকারীরা।

জানা যায়, সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটি ৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আগের বছরে কোম্পানিটি ৫ শতাংশ নগদ ও ৭ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছিল। অপরদিকে, সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা ৪৫ পয়সা। আর আগের বছরে শেয়ারপ্রতি আয় ছিল ১ টাকা ৬২ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটি এবছর লভ্যাংশ কম ঘোষণা করেছে ২ শতাংশ এবং শেয়ারপ্রতি আয় কম করেছে ১৭ পয়সা। কিন্তু কোম্পানিটির শেয়ার দরে পতন হয়েছে ৩৩ শতাংশ।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, তথ্য প্রযুক্তি খাতে লভ্যাংশ ঘোষণা করা কোম্পানিগুলোরে মধ্যে ডেফোডিল কম্পিউটার্স ১৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ, আমরা নেটওয়ার্কস ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ এবং আমরা টেকনোলজি ১০ শতাংশ নগদ ঘোষণা করেছে। এ ৩টি কোম্পানির লভ্যাংশও বিনিয়োগকারীদের প্রত্যাশা অনুযায়ী হয়নি। তারপরও আমরা নেটওয়ার্কস এবং আমরা টেকলোজির শেয়ার দর তেমন না কমলেও বিডিকমের শেয়ার দরে অস্বাভাবিক বিপর্যয় নেমে এসেছে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কোম্পাটির শেয়ার দরে বিপর্যয় স্বাভাবিক বলে মনে হচ্ছে না। কোম্পানিটির শেয়ার দরে অস্বাভাবিক পতন ঘটানোর পেছনে হয়তো কোন চক্রের হাত রয়েছে। যারা কম দরে কোম্পানিটির শেয়ার হাতিয়ে নেয়ার পাঁয়তারায় লিপ্ত।

হাক্কানি পাল্প: এক মাস আগে হাক্কানি পাল্পের শেয়ার দর ছিল ৭১ টাকা। গত বৃহ্স্পতিবার কোম্পানিটির শেয়ার দর ৫৩ টাকার নিচেনেমে আসে। কোম্পানিটির শেয়ার কিনে এক মাসের ব্যবধানে বিনিয়োগকারীরা প্রায় ২৬ শতাংশ পুঁজি হারিয়েছেন।

জানা যায়, সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটি কোন লভ্যাংশ ঘোষণা করেনি। আগের হিসাব বছরে কোম্পানিটি ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। অপরদিকে, সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ৯৫ পয়সা। আর আগের হিসাব বছরে শেয়ারপ্রতি লোকসান ছিল ৭২ পয়সা। লভ্যাংশ না দেয়া এবং লোকসানে থাকার কারণে মূলত: কোম্পানিটির শেয়ার দরে অস্বাভাবিক পতন হয়েছে।

শেয়ারবার্তা / জুয়েল

সংবেদনশীল তথ্য এর সর্বশেষ খবর

উপরে