ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

শীর্ষ ঋণ খেলাপির কোম্পানিতে বিনিয়োগে সাবধান!

২০১৭ জুলাই ১২ ২০:১১:৩২
শীর্ষ ঋণ খেলাপির কোম্পানিতে বিনিয়োগে সাবধান!

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সম্প্রতি জাতীয় সংসদে দেশের শীর্ষ ১০০ ঋণ খেলাপি প্রতিষ্ঠানের নাম প্রকাশ করেছেন। এরমধ্যে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ছয় প্রতিষ্ঠান রয়েছে। দুইটি প্রতিষ্ঠান ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মূল মার্কেটে তালিকাভুক্ত। আর চারটি প্রতিষ্ঠান ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেটে তালিকাভুক্ত। মূল মার্কেটের তালিকায় রয়েছে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড এবং অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ। আর ওটিসি মার্কেটের তালিকায় রয়েছে মুন্নু ফেব্রিক্স, সালেহ কার্পেট মিলস, অ্যাপেক্স ওয়েভিং এন্ড ফিনিশিং মিলস এবং আলফা টোবাকো ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পুঁজিবাজারের কোনো কোম্পানি শীর্ষ ঋণ খেলাপির তালিকায় আসা বাজারের জন্য ইতিবাচক নয়। এ ধরনের কোম্পানির জন্য বাজার সম্পর্কে বিনিয়োগকারীদের কাছে নেতিবাচক বার্তা যায়। এ কোম্পানিগুলোতে বিনিয়োগের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

ডিএসইর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বলছেন, মূল মার্কেট ও ওটিসি মার্কেট মিলিয়ে ডিএসইর প্রায় চারশ কোম্পানির মধ্যে ছয়টি প্রতিষ্ঠান শীর্ষ ঋণ খেলাপির তালিকায় রয়েছে। অর্থাৎ পুঁজিবাজারের মাত্র ১ শতাংশের মতো কোম্পানি এ তালিকায় রয়েছে, যা খুব বেশি নয়। তারপরও এসব কোম্পানি পুঁজিবাজারের সুনামের জন্য নেতিবাচক। তাই বিনিয়োগকারীদেরকে সতর্ক হয়ে বিনিয়োগ করতে হবে।

বাজার বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গতকাল ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৩৭ টাকায়। যেখানে শেয়ারের গায়ের মূল্য (ফেসভ্যালু) ১০ টাকা। অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ারের লেনদেন হয়েছে ১৫ টাকায় (ফেসভ্যালু ১০ টাকা)। ওটিসি মার্কেটে আলফা টোবাকোর শেয়ারের দামও ফেসভ্যালুর চেয়ে বেশি।

মার্চেন্ট ব্যাংকাররা বলছেন, কোনো কোম্পানি ব্যবসা পরিচালনা করতে গেলে লোকসান হতেই পারে। শেয়ার ব্যবসায়ীদের সুযোগ রয়েছে কোম্পানির ভিত্তি বিবেচনা করে বিনিয়োগ করার। তারা যদি দেখেন, কোনো কোম্পানি বছরের পর বছর লোকসান করছে। পাশাপাশি ঋণ খেলাপি হচ্ছে তখন তারা তাদের বিনিয়োগ স্থানান্তর করতে পারেন। তা না করে কেউ যদি ওই শেয়ার কিনতেই থাকেন, সেটি তার বিষয়।

শীর্ষ ঋণ খেলাপি হওয়ার পরও কোম্পানির শেয়ারের দাম ফেসভ্যালুর কয়েকগুণ দামে বিক্রি হওয়ার কারণ জানতে চাইলে সম্পদ ব্যবস্থাপকরা বলেন, যিনি পুঁজিবাজারে টাকা লগ্নি করেন তিনি চাইলে বাজারের যে কোনো কোম্পানির শেয়ার কিনতে পারেন। এটা তাদের নিজস্ব সিদ্ধান্তের বিষয়। তবে কোম্পানিগুলো একদিনে বিশাল অংকের টাকা ঋণ খেলাপি হয়ে গেছে এমন নয়। বরং ধীরে ধীরে এমন অবস্থায় এসেছে। তাই আগে থেকেই বিনিয়োগকারীদের সতর্ক হতে হয়। বাজারে অনেক ভালো কোম্পানি রয়েছে সেসব কোম্পানিতে বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগ করতে পারেন।

শেয়ারবার্তা/শহিদুল ইসলাম

সংবেদনশীল তথ্য এর সর্বশেষ খবর

উপরে