ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

সাপ্তাহিক লেনদেনের তিন শতাংশ ন্যাশনাল টিউবসের

২০১৯ অক্টোবর ০৫ ১২:১৪:০৫
সাপ্তাহিক লেনদেনের তিন শতাংশ ন্যাশনাল টিউবসের

প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আগের সপ্তাহের মতো গত সপ্তাহেও লেনদেনের শীর্ষে উঠে এসেছে প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড। বিাদয়ী সপ্তাহে কোম্পানিটির ৩৪ লাখ ৯৬ হাজার ২১৩টি শেয়ার ৫৭ কোটি ৪১ লাখ ৮৪ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের দুই দশমিক ৯৩ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর পাঁচ দশমিক ৪৩ শতাংশ বেড়েছে।

সর্বশেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির শেয়ার ১৭৪ টাকায় হাতবদল হয়। ওইদিন কোম্পানিটির আট লাখ ৪৪ হাজার ২৬৮টি শেয়ার লেনদেন হয়। যার বাজারদর ১৪ কোটি ৫৫ লাখ ৫১ হাজার টাকা। শেয়ারটির সমাপনী দর দাঁড়িয়েছে ১৭২ টাকা ৮০ পয়সায়। গত এক বছরে শেয়ারটির দর ৯৮ টাকা ৩০ পয়সা থেকে ১৭৮ টাকায় ওঠানামা করে।

‘এ’ ক্যাটেগরির ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড ১৯৮৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি লোকসান (ইপিএস) হয়েছে দুই টাকা পাঁচ পয়সা আর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯৩ টাকা ৬২ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে দুই টাকা ৮৬ পয়সা লোকসান ও ২১৫ টাকা ২০ পয়সা।

২০১৮ সালে কোম্পানিটি লোকসান করেছে পাঁচ কোটি ৯০ লাখ ৫০ হাজার টাকা। আগের বছর লোকসান ছিল সাত কোটি ৪৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৩১ কোটি ৬৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫২৫ কোটি ৫৬ লাখ ২০ হাজার টাকা।

সদ্য বিদায়ী অর্থবছরের প্রথম ৮ মাসে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ৯৬ পয়সা। আগরে বছর একই সময়ে শেয়ারপ্রতি লোকমান ছিল ২ টাকা ১৪ পয়সা।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ন্যাশনাল টিউবসের মোট তিন কোটি ১৬ লাখ ৫৬ হাজার ১৮৫টি শেয়ার রয়েছে। মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালক ও সরকারের কাছে ৫১ শতাংশ ৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদৈর কাছে ২০ দশমিক ১৪ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৮ দশমিক ৮১ শতাংশ শেয়ার।

শেয়ারবার্তা / মিলন

বাজার বিশ্লেষণ এর সর্বশেষ খবর

উপরে