ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

ব্যাংক খাতের কারণে শেয়ারবাজার ঊর্ধ্বমুখী

২০১৯ সেপ্টেম্বর ০৮ ১৯:০৪:০১
ব্যাংক খাতের কারণে শেয়ারবাজার ঊর্ধ্বমুখী

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমলেও সবকটি মূল্য সূচক বেড়েছে।

মূলত ব্যাংক খাতের বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দাম বাড়ার কারণে সূচকের এ ঊর্ধ্বমুখিতার দেখা মিলেছে। অবশ্য ব্যাংকের ওপর ভর করে দুই বাজারেই মূল্য সূচক বাড়লেও কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।


এদিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১২৯ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার বিপরীতে কমেছে ১৭২টির। আর ৫২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের এ দরপতনের মধ্যে ২২ ব্যাংকের শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে চারটির দাম।

বেশিরভাগ ব্যাংকের শেয়ার দাম বাড়ার প্রভাবে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ২০ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৩৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাকি দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ ৪ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ১৭১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই-৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৭৬৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ বাড়ছে এমন গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ায় বেশিরভাগ ব্যাংকের শেয়ার দাম বেড়েছে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

তারা বলছেন, বৃহস্পতিবার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও স্টেকহোল্ডারদের একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে বিএসইসির পক্ষ থেকে জানানো হয়- ‘ব্যাংক কোম্পানিগুলো শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ বাড়াবে’- এ ধরনের গুঞ্জন বাজারে ছড়িয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে ডিএসইর এক সদস্য বলেন, বিএসইসি থেকে বলা হয়েছে আজ (৮ সেপ্টেম্বর) থেকেই ব্যাংক কোম্পানি শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ বাড়ানো শুরু করবে। এ তথ্য কতটুকু সত্য তা জানি না। তবে ব্যাংকের শেয়ার দাম বাড়ার ক্ষেত্রে এটি ভূমিকা রেখেছে। আর ব্যাংকের শেয়ার দাম বাড়ার কারণে সার্বিক শেয়ার বাজারেও ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

এদিকে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম কমার পাশাপাশি ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণও কিছুটা কমেছে। দিনভর বাজারে লেনদেন হয়েছে ৩৭১ কোটি ৬১ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪২৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকার। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ৫৬ কোটি ৪ লাখ টাকা।

বাজারে টাকার পরিমাণে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ন্যশনাল টিউবসের শেয়ার। কোম্পানিটির ৩২ কোটি ৬১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বিকন ফার্মাসিউটিক্যালের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। ১২ কোটি ৩৫ লাখ টাকার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মুন্নু সিরামিক।

এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে- স্টাইল ক্রাফট, মুন্নু জুট স্টাফলার্স, ফরচুন সুজ, সিলকো ফার্মাসিউটিক্যাল, বাংলাদেশ সাব মেরিন কেবলস, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি এবং বঙ্গজ।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ২৯২ পয়েন্টে। লেনদেন হয়েছে ১৩ কোটি ৬৬৮ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ২৫১ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ১০০টির, কমেছে ১১৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টির।

শেয়ারবার্তা / হামিদ

বাজার বিশ্লেষণ এর সর্বশেষ খবর

উপরে