ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৯ আশ্বিন ১৪২৬

বাণিজ্যিক উৎপাদনে লিন্ডে বিডির কার্বন ডাই-অক্সাইড প্লান্ট

২০১৯ আগস্ট ০৩ ১১:৫১:৪৭
বাণিজ্যিক উৎপাদনে লিন্ডে বিডির কার্বন ডাই-অক্সাইড প্লান্ট

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত লিন্ডে বিডির কার্বন ডাই-অক্সাইড প্লান্টে বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হয়েছে। চলতি বছরের মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে প্লান্টটি বাণিজ্যিক উৎপাদনে গেছে বলে জানা গেছে। তবে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ প্ল্যান্টটির বাণিজ্যিক উৎপাদনের খবর আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো ঘোষণা দেয়নি এবং স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষকে কোনো কিছু জানায়নি।

প্ল্যান্টটির বাণিজ্যিক উৎপাদনের মেয়াদ আড়াই মাসেরও বেশি হয়ে গেছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়নি কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে লিন্ডে বিডির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মহসিন উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমরা আগেই ঘোষণা দিয়েছিলাম, চলতি বছরের জুলাইয়ের মধ্যে প্লান্টটির বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হবে। মে মাসের মাঝামাঝিতে আমাদের বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হয়েছে। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। তাই নতুন করে ঘোষণা দেয়ার প্রয়োজন হয়নি।

উল্লেখ্য, গত বছরের এপ্রিলে রূপগঞ্জে নতুন একটি মার্চেন্ট কার্বন ডাই-অক্সাইড প্লান্ট স্থাপনে ৫৮ কোটি ২৪ লাখ টাকা বিনিয়োগের অনুমোদন দেয় লিন্ডে বিডির পরিচালনা পর্ষদ। প্রাথমিকভাবে প্লান্টটির উৎপাদন সক্ষমতা ধরা হয় প্রায় ৩৬ টন।

এদিকে বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মে মাসের শেষ থেকে জুনের মাঝামাঝি পর্যন্ত লিন্ডে বিডির শেয়ারদরে টানা ঊর্ধ্বগতি বিরাজ করেছে। এ সময়ের মধ্যে কোম্পানিটির শেয়ারদর ১৩০ টাকার বেশি বেড়েছে। ২৭ মে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কোম্পানিটির শেয়ার দর ছিল ১ হাজার ১০১ টাকা ৮০ পয়সা, যা ১০ জুন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৩২ টাকা ৫০ পয়সা।

অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি ২০১৯ হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন) লিন্ডে বিডির কর-পরবর্তী মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২০ দশমিক ২৯ শতাংশ বেড়েছে। ২০১৮ হিসাব বছরের প্রথম ছয় মাসে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফা হয়েছিল ৪৬ কোটি ৪৯ লাখ ৯৯ হাজার টাকা। চলতি হিসাব বছরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৫ কোটি ৯৩ লাখ ৬৮ হাজার টাকা।

প্রথমার্ধে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৩৬ টাকা ৭৬ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৩০ টাকা ৫৬ পয়সা। দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন) ইপিএস হয়েছে ১৮ টাকা ৪৯ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১৩ টাকা ১১ পয়সা।

এদিকে জানুয়ারি-জুন মেয়াদে লিন্ডে বিডির রাজস্ব বেড়েছে ৮ দশমিক ৫ শতাংশ। গত বছরের প্রথমার্ধে কোম্পানিটির রাজস্ব এসেছিল ২৬১ কোটি ৩০ লাখ ৮৯ হাজার টাকা। চলতি বছর তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮৩ কোটি ৪৯ লাখ ৯৮ হাজার টাকা। তবে প্রথমার্ধে কোম্পানিটির পরিচালন ব্যয় আগের বছরের তুলনায় কমেছে। গত বছরের প্রথমার্ধে কোম্পানিটির পরিচালন ব্যয় হয়েছিল ৪৪ কোটি ৪৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা। চলতি বছর তা দাঁড়িয়েছে ৪২ কোটি ৫৮ লাখ ৯৮ হাজার টাকা।

ডিএসইতে বৃহস্পতিবার লিন্ডে বিডি শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ১ হাজার ২০৪ টাকা ১০ পয়সা, যা আগের দিনের চেয়ে ১২ টাকা ১০ পয়সা বা ১ দশমিক শূন্য শতাংশ বেশি। সমাপনী দর ছিল ১ হাজার ২০২ টাকা ৪০ পয়সা। দিনভর দর ১ হাজার ১৭১ টাকা ২০ পয়সা থেকে ১ হাজার ২০৮ টাকা ১০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে। এদিন ২৪০ বারে কোম্পানিটির মোট ৭ হাজার ৪০২টি শেয়ার লেনদেন হয়। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ১ হাজার ৭ টাকা ৩০ পয়সা ও ১ হাজার ৩৮৪ টাকা।

বর্তমান লিন্ডে বাংলাদেশ ১৯৭৬ সালে বাংলাদেশ অক্সিজেন কোম্পানি নামে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। এর অনুমোদিত মূলধন ২০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ১৫ কোটি ২১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ৪৩১ কোটি ৪১ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ারের ৬০ শতাংশ রয়েছে এর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কাছে। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২৯ দশমিক ৪০ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে ১০ দশমিক ৬০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজার দরের ভিত্তিতে লিন্ডে বিডি শেয়ারের মূল্য আয় অনুপাত বা পিই রেশিও ১৮ দশমিক ২৩, অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে যা ১৬ দশমিক ৩৫।

শেয়ারবার্তা / মামুন

সংবেদনশীল তথ্য এর সর্বশেষ খবর

উপরে