ঢাকা, বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

সাধারণ বীমাখাতে ইনভেস্টমেন্ট রিটার্ন ক্রমশ কমছে

২০১৯ মার্চ ৩০ ২১:২১:৫৪
সাধারণ বীমাখাতে ইনভেস্টমেন্ট রিটার্ন ক্রমশ কমছে

দেশের নন-লাইফ বা সাধারণ বীমা খাতে গত ৮ বছরে বিনিয়োগ আয় হার (ইনভেস্টমেন্ট রিটার্ন রেট) কমেছে ৭.৪১ শতাংশ। ২০১০ সালে বীমা কোম্পানিগুলোর বিনিয়োগ আয় ছিল ১৩.৯৯ শতাংশ। যা ২০১৮ সালে এসে দাঁড়িয়েছে ৬.৫৮ শতাংশে। তবে বিনিয়োগ আয় হার কমলেও বিনিয়োগের পরিমাণ ধারাবাহিকভাবেই বেড়েছে বলে জানিয়েছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।

বীমা মেলা ২০১৮’র স্যুভেনিয়রে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২০১০ সালে দেশের সরকারি বেসরকারি ৪৪টি সাধারণ বীমা কোম্পানির সর্বমোট বিনিয়োগ ছিল ২ হাজার ৭২৯ কোটি টাকা। বছর শেষে এই বিনিয়োগ থেকে আয় হয় ৩৮২ কোটি টাকা। অর্থাৎ আলোচ্য বছরে বিনিয়োগ থেকে আয়ের হার ছিল ১৩.৯৯ শতাংশ।

অন্যদিকে ২০১৮ সালে দেশের সরকারি-বেসরকারি ৪৬টি সাধারণ বীমা কোম্পানির সর্বমোট বিনিয়োগ দাঁড়ায় ৫ হাজার ৬৮৩ কোটি টাকা। বছর শেষে এই বিনিয়োগ থেকে আয় হয় ৩৭৪ কোটি টাকা। অর্থাৎ ২০১৭ সালের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ বিনিয়োগ করেও মুনাফা হয়েছে প্রায় অর্ধেক। ২০১৮ সালে বিনিয়োগ থেকে আয় ৬.৫৮ শতাংশ।

তথ্য অনুসারে, ২০১০ সালের পর থেকেই কমতে শুরু করে সাধারণ বীমাকারীদের বিনিয়োগ আয়। তবে ২০১১ সালে বিনিয়োগ আয় সবচেয়ে বেশি কমে যায়। আগের বছের তুলনায় সে বছর ৫.১৩ শতাংশ বিনিয়োগ আয় কমে যায়। আলোচ্য বছরে ৩ হাজার ৪৪ কোটি টাকা বিনিয়োগ থেকে ২৭০ কোটি টাকা আয় হয়, যা ৮.৮৬ শতাংশ।

এ ছাড়াও ২০১২ সালে ৩ হাজার ৭২১ কোটি টাকা বিনিয়োগ করে ৩১০ কোটি টাকা, ২০১৩ সালে ৪ হাজার ১৯৩ কোটি টাকায় ৩৭১ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে ৪ হাজার ৬২৮ কোটি টাকায় ৪৩২ কোটি টাকা, ২০১৫ সালে ৪ হাজার ৮৮৪ কোটি টাকায় ৩৮৯ কোটি টাকা, ২০১৬ সালে ৫ হাজার ১৮৯ কোটি টাকায় ৪০০ কোটি টাকা এবং ২০১৭ সালে ৫ হাজার ৮০৬ কোটি টাকায় ৪১৫ কোটি টাকা আয় হয়।

তবে ২০১৮ সালে এসে দেশের সাধারণ বীমা কোম্পানিগুলোর বিনিয়োগ আয়ের পাশাপাশি বিনিয়োগের পরিমাণও কমেছে ১২৩ কোটি টাকা। অন্যদিকে বিনিয়োগ থেকে আয় কমেছে দশমিক ৫৮ শতাংশ। আলোচ্য বছরে ৫ হাজার ৬৮৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ করে কোম্পানিগুলোর আয় হয়েছে ৩৭৪ কোটি টাকা বা ৬.৫৮ শতাংশ।

শেয়ারবার্তা / মামুন

অনুসন্ধানী রিপোর্ট এর সর্বশেষ খবর

উপরে