ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬

ছয় দিনে লোকসানি কোম্পানির দর বেড়েছে ২৮ শতাংশ

২০১৯ ফেব্রুয়ারি ১০ ০৭:১৭:৫৬
ছয় দিনে লোকসানি কোম্পানির দর বেড়েছে ২৮ শতাংশ

চলতি হিসাব বছরের প্রথম ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর ২০১৮) শেয়ারপ্রতি লোকসান করেছে ৮ টাকা ৩ পয়সা। অথচ মাত্র ৬ কার্যদিবসে কোম্পানিটির দর বেড়েছে ২৭ দশমিক ৫০ শতাংশ। কোম্পানিটি হলো- স্বল্প মূলধনী কোম্পানি লিবরা ইনফিউশন। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, গত ৩০ জানুয়ারী কোম্পানিটির সমাপনী দর ছিল ৮৩৬ টাকা ৬০ পয়সা। গত বৃহস্পতিবার ৬ কার্যদিবসে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০৬৬ টাকা ৭০ পয়সায়। মাত্র ৬ কার্যদিবসে কোম্পানিটির দর বেড়েছে ২৩০ টাকা ১০ পয়সা বা ২৭ দশমিক ৫০ শতাংশ।

কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনে দেখা যায়, চলতি হিসাব বছরের প্রথম ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর ২০১৮) শেয়ারপ্রতি লোকসান করেছে ৮ টাকা ৩ পয়সা। অথচ আগের হিসাব বছরের একই সময়ে কোম্পানিটি মুনাফায় ছিল। অথচ গত এক বছরে স্বল্প মূলধনী এই কোম্পনিটির দর বেড়েছে ৪৯১ টাকা থেকে ১০৬৬ টাকায়। এক বছরে দর বেড়েছে প্রায় ২৬০ গুণ।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বিদায়ী সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন তিন কোটি ৫৮ লাখ ৩১ হাজার ২০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ১৭ কোটি ৯১ লাখ ৫৬ হাজার টাকার শেয়ার।

সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে কোম্পানিটির চার কোটি ৭৮ লাখ ৯৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দিনজুড়ে ৪৫ হাজার ৫৪১টি শেয়ার মোট এক হাজার ৮২০ বার হাতবদল হয়। শেয়ারদর আগের কার্যদিবসের চেয়ে ছয় দশমিক ২৫ শতাংশ বা ৬২ টাকা ৭০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ এক হাজার ৬৬ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল এক হাজার ৬৬ টাকা ৭০ পয়সা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনিম্ন এক হাজার ১৯ টাকা থেকে সর্বোচ্চ এক হাজার ৬৬ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়।

২০১৮ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ২০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। ওই বছর শেয়ারপ্রতি আয় ছিল পাঁচ টাকা এক পয়সা।

‘এ’ ক্যাটেগরির এ কোম্পানিটি ১৯৯৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ১০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন এক কোটি ৫০ লাখ ২০ হজার টাকা।

সর্বশেষ ডিএসম্ব হিসাব অনুযায়ী, কোম্পানিটির মোট ১৫ লাখ এক হাজার ৯২০টি শেয়ার রয়েছে। মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে ৩৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১৩ দশমিক ৮৬ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৫১ দশমিক ৭১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

শেয়ারবার্তা / মামুন

বাজার বিশ্লেষণ এর সর্বশেষ খবর

উপরে