ঢাকা, বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

পিপলস লিজিংয়ের অর্থ আত্মসাতে পরিচালকসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

২০১৯ জানুয়ারি ০৪ ১১:২২:২৯
পিপলস লিজিংয়ের অর্থ আত্মসাতে পরিচালকসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা


পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেডে পরস্পরের যোগসাজশে কোনো জামানত ছাড়াই হিসাব খোলার মাধ্যমে ঋণ নিয়ে ১০ কোটি টাকারও বেশি অর্থ আত্মসাৎ করার কারণে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক পরিচালকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বৃহস্পতিবার রাজধানীর পল্টন মডেল থানায় মামলাটি করেন সংস্থাটির সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ সিরাজুল হক। দুদক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিটির সাবেক পরিচালক বিশ্বজিৎ কুমার রায়, সাবেক নির্বাহী পরিচালক মো. হেলাল উদ্দিন, বিশ্বজিৎ রায়ের স্ত্রী শিল্পী রানী রায়, ভাই ইন্দ্রজিৎ কুমার রায় ও আত্মীয় রণবীর কুমার রায়কে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ২০০৫ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত পিপলস লিজিংয়ে এ জালিয়াতির ঘটনা ঘটে। দুদকের অনুসন্ধান ও প্রতিষ্ঠানটির নথিপত্র পর্যালোচনায় এর কর্মকর্তাদের যোগসাজশের বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে। তারা নিজেরা লাভবান হওয়ার জন্য পরিচালকের যোগসাজশে ভুয়া এ ঋণ দিয়েছেন। এতে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক নির্বাহী পরিচালক মো. হেলাল উদ্দিন, সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক দলিল উল হক ও মহাব্যবস্থাপক আ ন ম তারিক চৌধুরীও জড়িত ছিলেন। তবে দলিল উল হক ও আ ন ম তারিক চৌধুরী মারা যাওয়ার কারণে তাদের মামলায় আসামি করা হয়নি।

এজাহারের তথ্যানুসারে গত বছরের মার্চ পর্যন্ত বিশ্বজিৎ কুমার রায়ের কাছে পিপলস লিজিংয়ে সুদসহ বকেয়া ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। তার স্ত্রী শিল্পী রানী রায়ের সুদসহ বকেয়া ঋণের পরিমাণ ৪ কোটি ৫২ লাখ টাকা। তার ভাই ইন্দ্রজিৎ কুমার রায়ের সুদসহ বকেয়া ঋণ দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। আর বিশ্বজিৎ কুমার রায়ের আত্মীয় রণবীর কুমার রায়ের কাছে পিপলস লিজিংয়ের সুদসহ পাওনার পরিমাণ ৮ লাখ ৬৭ হাজার টাকা।


শেয়ারবার্তা / জুয়েল

সংবেদনশীল তথ্য এর সর্বশেষ খবর

উপরে