ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

যে কারণে কেপিসিএলের শেয়ার দরে অব্যাহত পতন

২০১৮ নভেম্বর ০৫ ০৬:৩৪:২৩
যে কারণে কেপিসিএলের শেয়ার দরে অব্যাহত পতন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানি খুলনা পাওয়ার লিমিটেড (কেপিসিএল)-এর বড় অংশ বিক্রি করতে যাচ্ছে সামিট গ্রুপ। গ্রুপটির অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সামিট করপোরেশনের পক্ষ থেকে খুলনা পাওয়ারের এক কোটি ৮০ লাখেরও বেশি শেয়ার বিক্রির ঘোষণা এসেছে। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে পাবলিক মার্কেটে শেয়ার বিক্রি করবে প্রতিষ্ঠানটি। গত কয়েকদিন যাবত উদ্যোক্তাদের বিশাল শেয়ার বিক্রির এ গুঞ্জনে কোম্পানিটির শেয়ারদর পতনে থাকে।

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার বড় অঙ্কের শেয়ার বিক্রির ঘোষণা আসায় খুলনা পাওয়ারের শেয়ারদরে বড় পতন হয়েছে। সাড়ে ৮ শতাংশ দর হারিয়ে শেয়ারটি নেমেছে ১০১.৬০ টাকায়। ডিএসইতে এদিন কোম্পানিটির ৩৪ লাখ ১১ হাজার ৫৩৯টি এবং সিএসইতে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৪৮৭টি শেয়ার কেনাবেচা হয়।

জানা যায়, খুলনা পাওয়ারের মালিকানায় আছে দেশের বেসরকারি বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী শীর্ষ দুই ব্যবসায়িক গ্রুপ সামিট এবং ইউনাইটেড। গ্রুপ দুটির প্রত্যেকের মালিকানায় রয়েছে কোম্পানিটির সোয়া ৩৫ শতাংশ (১২ কোটি ৭৪ লাখ ৬৯ হাজার) করে শেয়ার। এর মধ্যে ইউনাইটেড গ্রুপের শেয়ার আছে ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজের নামে। অন্যদিকে সামিট গ্রুপের শেয়ার আছে সমান দুটি ভাগে তালিকাভুক্ত কোম্পানি সামিট পাওয়ার ও সামিট করপোরেশনের নামে।

১৯৯৭ সালে কার্যক্রম শুরু করা দেশের প্রথম বার্জমাউন্টেড বিদ্যুৎ কোম্পানির মালিকানায় বর্তমানে সামিট ও ইউনাইটেড গ্রুপের অংশ সমান। শুরু থেকে সামিটের তত্ত্বাবধানে এটি পরিচালিত হয়। গত কয়েক বছরে এটির তত্ত্বাবধান করছে ইউনাইটেড।

গত প্রায় দুই মাস ধরে শেয়ারবাজারে গুঞ্জন ছিল, খুলনা পাওয়ারের মালিকানার পুরোটা বা সামিট করপোরেশনে নামে থাকা শেয়ারের পুরো অংশ বিক্রি করবে সামিট গ্রুপ। অন্যদিকে, খুলনা পাওয়ারের অপর অংশীদার ইউনাইটেড গ্রুপ সামিটের শেয়ারগুলো কিনতে যাচ্ছে।

এমন গুঞ্জনে খুলনা পাওয়ার ও সামিট পাওয়ার- উভয় শেয়ারের দরে উল্লম্ম্ফন হয়। গত সেপ্টেম্বরের প্রথমার্ধে খুলনা পাওয়ারের শেয়ারদর ৭০ টাকা থেকে দ্বিগুণ বেড়ে প্রায় ১৪০ হয়। আর গত মাসের প্রথম দুই সপ্তাহে সামিট পাওয়ারের শেয়ারদর প্রায় ৩০ শতাংশ বেড়ে ৫২ টাকা ছাড়ায়। তবে খুলনা পাওয়ারের মালিকানা থেকে সামিট পাওয়ার এখনই সরছে না- এমন তথ্যে পুনরায় খুলনা পাওয়ার ও সামিট পাওয়ারের দরপতন হয়।

এমন প্রেক্ষাপটে রোববার ঘোষণায় সামিট করপোরেশন জানিয়েছে, তাদের কাছে থাকা ৬ কোটি ৩৭ লাখ ৩৪ হাজার ৭২৭টি শেয়ার থেকে ১ কোটি ৮০ লাখ ৬৪ হাজার ২৩৫টি শেয়ার পাবলিক মার্কেটের মাধ্যমে বিক্রি করা হবে, যা সামিট গ্রুপের ধারণ করা মোট শেয়ারের ১৪ শতাংশ।

জানা যায়, প্রায় দুই সপ্তাহ আগে সামিট করপোরেশন শেয়ার বিক্রির অনুমতি নিয়েছে। তবে গত ৩০ অক্টোবর পর্ষদ সভার নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতোবেদন অনুমোদনের আগে এ শেয়ার বিক্রির বিষয়ে ঘোষণা দেওয়ার সুযোগ ছিল না। তাই নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদনের পর কোম্পানিটির উদ্যেক্তা সামিট করপোরেশন শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিল।

শেয়ারবার্তা / জুয়েল

কোম্পানী সংবাদ এর সর্বশেষ খবর

উপরে