ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

টানা ১১ কার্যদিবসের পতনে কমেছে ৩০২ পয়েন্ট

২০১৮ মে ১৬ ১৫:৫২:৫২
টানা ১১ কার্যদিবসের পতনে কমেছে ৩০২ পয়েন্ট

চীনা কনসোর্টিয়ামের সঙ্গে চুক্তিকে কেন্দ্র করে শেয়ারবাজার ইতিবাচক হবে এমন গুঞ্জন থাকলেও তার প্রতিফলন নাই। বরং টানা পতনের মধ্য দিয়েই শেয়ারবাজার পার হচ্ছে। যা এরইমধ্যে ১১ কার্যদিবস পতন হয়েছে। এ সময় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূলসূচক কমেছে ৩০২ পয়েন্ট। যাতে ডিএসইর সূচক গত দেড় মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থায় নেমে এসেছে।ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বুধবার (১৬ মে) শেয়ারবাজারে পতনের মাধ্যমে টানা ১১ কার্যদিবস মূল্যসূচক কমেছে। বুধবারের ৩৭ পয়েন্টের মাধ্যমে ১১ কার্যদিবসে ৩০২ পয়েন্ট কমেছে। এমন টানা পতনে বিনিয়োগকারীরা আতঙ্কিত। তবে এই পতনের পেছনে যৌক্তিক কারন খুজে পাচ্ছেন না বাজার সংশ্লিষ্টরা।

বুধবার ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৩৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫৫১২ পয়েন্টে। যা গত ২৯ মার্চের মধ্যে সর্বনিম্ন। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১০ ও সিএসই-৩০ সূচক ১৭পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২৯১ ও ২০৫৬ পয়েন্টে।

এদিন ডিএসইতে ৩৯৪ কোটি ৮৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ৩৯ কোটি ৫৭ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৩৫৫ কোটি ২৯ লাখ টাকার।

বুধবার ডিএসইতে হাত বদল হওয়া ৩৩৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে ৭১টির। আর দর কমেছে ২২৩টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৫টি কোম্পানির দর।

অপর শেয়ারবাজার সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১০২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৭০২৬ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসই-৫০ সূচক ৭ ও সিএসসিএক্স ৬০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২৭৬ ও ১০২৯৪ পয়েন্টে। আর সিএসই-৩০ সূচক ৪৭ ও সিএসআই ৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১৫৫৪৩ ও ১১৫৮ পয়েন্টে।

এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৩২ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে ৪৮টির,কমেছে ১৫৪টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির দর। সিএসইতে আজ ২৩ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২৯ কোটি ৮০ লাখ টাকার।

শেয়ার বার্তা/ জে ভি

বাজার বিশ্লেষণ এর সর্বশেষ খবর

উপরে