ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

চীনা কনসোর্টিয়ামের আর্থিক ও কারিগরি প্রস্তাব মূল্যায়ন করতে হবে

২০১৮ মে ১১ ০৫:৩৫:৪৪
চীনা কনসোর্টিয়ামের  আর্থিক ও কারিগরি প্রস্তাব মূল্যায়ন করতে হবে

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই) কৌশলগত অংশীদার হিসেবে চীনা কনসোর্টিয়ামের (শেনঝেন-সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ) আর্থিক ও কারিগরি প্রস্তাব মূল্যায়ন করতে হবে। গত সপ্তাহে ডিএসইর কৌশলগত অংশীদার হিসেবে শেনঝেন-সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের সংশোধিত শেয়ার ক্রয় চুক্তি (এসপিএ) সাতটি শর্ত পরিপালনসাপেক্ষে অনুমোদন করে বিএসইসি। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে দেশের পুঁজিবাজারের স্বার্থে চীনা কনসোর্টিয়ামের আর্থিক ও কারিগরি প্রস্তাব মূল্যায়ন করা।

নিয়ন্ত্রক সংস্থার দেয়া অন্যান্য শর্তের মধ্যে রয়েছে, দুই পক্ষের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে এসপিএ স্বাক্ষরের সাতদিনের মধ্যে চুক্তির কপি বিএসইসির কাছে জমা দিতে হবে, কৌশলগত অংশীদারের কাছে শেয়ার হস্তান্তরের তিন মাসের মধ্যে এসংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন বিএসইসিকে জমা দিতে হবে, এসপিএ স্বাক্ষরের এক বছরের মধ্যে চুক্তি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া শেষ করে কমিশনকে অবগত করতে হবে, কৌশলগত অংশীদারসংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম সিকিউরিটিজ আইন ও দেশের প্রযোজ্য অন্যান্য আইনসহ এক্সচেঞ্জেস ডিমিউচুয়ালাইজেশন আইন ও ডিএসইর ডিমিউচুয়ালাইজেশন স্কিম অনুসারে পরিচালনা করতে হবে এবং কমিশনের অনুমোদন ছাড়া চুক্তির শর্ত ও আনুষঙ্গিক অন্যান্য বিষয় পরিবর্তন করা যাবে না।

এ বিষয়ে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কেএএম মাজেদুর রহমান বলেন, দেশের পুঁজিবাজার ও স্টক এক্সচেঞ্জের বর্তমান অবস্থায় চীনা কনসোর্টিয়ামের আর্থিক ও কারিগরি প্রস্তাবের প্রয়োজনীয়তা মূল্যায়ন করতে হবে আমাদের। এ বিষয়ে বিএসইসিকেও অবগত করতে হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে এ বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি কৌশলগত অংশীদারদের প্রস্তাবসংবলিত টেন্ডার বক্স উন্মোচন করে ডিএসই। দরপত্র প্রক্রিয়ায় কৌশলগত অংশীদারের জন্য সংরক্ষিত ডিএসইর ১৮০ কোটি ৩৭ লাখ ৭৬ হাজার ৫০০ শেয়ারের এক-চতুর্থাংশ শেয়ার কিনতে দুটি কনসোর্টিয়ামের প্রস্তাব জমা হয়। এর মধ্যে শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের চীনা কনসোর্টিয়াম ডিএসইর প্রতি শেয়ারের জন্য ২২ টাকা হারে ৯৯২ কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব করে। এর বাইরে তারা ডিএসইকে বিনামূল্যে বিভিন্ন কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়, যার মূল্য উল্লেখ করা হয় ৩০৮ কোটি টাকা। তবে মধ্যবর্তী সময়ে সর্বশেষ হিসাব বছরের জন্য বর্তমান শেয়ারহোল্ডারদের নগদ লভ্যাংশ দেয়ায় ডিএসইর প্রতিটি শেয়ারের ভ্যালুয়েশন কিছুটা কমে যায়, যা চূড়ান্ত এসপিএতে সমন্বয় করা হয়েছে। চীনা কনসোর্টিয়ামের কাছ থেকে এখন ডিএসই প্রতিটি শেয়ারের দাম পাবে ২১ টাকা।

চীনা কনসোর্টিয়ামের দেয়া কারিগরি সহায়তাসংক্রান্ত প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে— ডিএসইর ট্রেডিং ও সার্ভিল্যান্স সিস্টেমের আধুনিকায়ন, বিজনেস প্রসেস ম্যানেজমেন্ট (বিপিএম) সিস্টেম কনসাল্টিং প্ল্যান, বন্ডের টেন্ডার সিস্টেমের জন্য কনসাল্টিং সার্ভিস, ইনফরমেশন ডিসক্লোজার সিস্টেমের জন্য কনসাল্টিং সিস্টেম প্ল্যান, ডাটা সেন্টার ও কো-লোকেশনের জন্য কনসাল্টিং সার্ভিস প্ল্যান, এফডিইপি প্রযুক্তি স্থানান্তর ও ফিন্যান্সিয়াল ক্লাউড টেকনোলজি স্থানান্তর পরিকল্পনা করার কথা বলা হয়েছে। এসব কারিগরি প্রযুক্তির জন্য ১০ বছরের লাইসেন্স এবং তিন বছরের ট্রেনিং ও কনসাল্টিং সার্ভিস সম্পূর্ণ ফ্রি দেবে শেনঝেন-সাংহাই কনসোর্টিয়াম। এর বাইরে তারা আরো বেশকিছু পণ্য প্রচলন ও বাজার উন্নয়নের জন্য পদক্ষেপ নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছে।

ডিএসইর কৌশলগত বিনিয়োগকারীল হিসাবে চীনা কনসোর্টিয়ামের প্রস্তাব গত ৩ মে জরুরি কমিশন সভায় অনুমোদন করে বিএসইসি। আগামী ১৪ মে সন্ধ্যায় রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের উপস্থিতিতে ডিএসই ও শেনঝেন-সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের মধ্যে আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে।

শেয়ারবার্তা / শহিদুল ইসলাম

সংবেদনশীল তথ্য এর সর্বশেষ খবর

উপরে