ঢাকা, সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮, ৭ কার্তিক ১৪২৫

বসুন্ধরার আইপিও আবেদন পিছিয়ে ৩০ এপ্রিল থেকে

২০১৮ এপ্রিল ১২ ১৮:০৩:০৮
বসুন্ধরার আইপিও আবেদন পিছিয়ে ৩০ এপ্রিল থেকে

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে প্রায় ২০০ কোটি টাকার মূলধন সংগ্রহ করবে। এজন্য আগামী ৩০ এপ্রিল থেকে আইপিও আবেদন শুরু হয়ে চলবে আগামী ৯ মে পর্যন্ত।

ইস্যু ব্যবস্থাপক কোম্পানি ত্রিপল ‘এ’ কোম্পানির ইস্যু ম্যানেজার এম এ মামুন বৃহস্পতিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা পেপার মিলস লিমিটেডের সাবস্ক্রিপশন শুরু হবে আগামী ৩০ এপ্রিল থেকে এবং চলবে আগামী ৯ মে পর্যন্ত। একই তথ্য নিশ্চিত করেন বসুন্ধরা পেপার মিলস লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার জনাব মিঠুও।

এর আগে ‘বসুন্ধরা পেপারের আইপিও আবেদন ২৬ এপ্রিল থেকে’ প্রতিবেদনে সাবস্ক্রিপশনের সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারিত হয়েছে বলে ঘোষণা করেছিল।

ইলেকট্রনিক বিডিংয়ের মাধ্যমে নির্ধারিত কাট অফ প্রাইস ৮০ টাকায় ইলিজিবল ইনভেস্টরদের (ইআই) কাছে আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৭২ টাকা দরে শেয়ার ইস্যু করবে বসুন্ধরা পেপার।

তথ্যানুসারে, বসুন্ধরা পেপার পুঁজিবাজারে ২ কোটি ৬০ লাখ ৪১ হাজার ৬৬৭টি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ১৯৯ কোটি ৯৯ লাখ ৯৯ হাজার ৯৫২ টাকা সংগ্রহ করবে। এর মধ্যে কাট অফ প্রাইস বা ৮০ টাকা দরে ১ কোটি ৫৬ লাখ ২৫ হাজার শেয়ার ইআইদের কাছে ১২৫ কোটি টাকায় ইস্যু করা হবে।

বাকি ১ কোটি ৪ লাখ ১৬ হাজার ৬৬৬টি শেয়ার কাট অফ প্রাইসের ১০ শতাংশ কমে ৭২ টাকা করে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৭৪ কোটি ৯৯ লাখ ৯৯ হাজার ৯৫২ টাকায় বিক্রি করা হবে।

এর আগে আইপিওর মাধ্যমে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজার থেকে মূলধন সংগ্রহে ২০১৬ সালের ৩০ জুন রোড শোর আয়োজন করে বসুন্ধরা পেপার। রোড শোর এক বছরেরও বেশি সময় পরে ২০১৭ সালের আগস্টে কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের জন্য বিডিংয়ের অনুমোদন পায় কোম্পানিটি। বিডিংয়ের মাধ্যমে কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের পর গত ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় বিনিয়োগকারীদের কাছে বসুন্ধরা পেপারের শেয়ার ইস্যুর অনুমোদন দেয় বিএসইসি।

কোম্পানিটির প্রসপেক্টাস অনুসারে, আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থে কারখানার অবকাঠামো উন্নয়ন, যন্ত্রপাতি ক্রয়, স্থাপনা ও ভূমি উন্নয়ন বাবদ ১৩৫ কোটি, ঋণ পরিশোধ বাবদ ৬০ কোটি এবং বাকি ৫ কোটি টাকা আইপিও প্রক্রিয়ার ব্যয়নির্বাহে খরচ করবে বসুন্ধরা পেপার। ৩০ জুন, ২০১৬ পর্যন্ত কোম্পানিটির ভারিত গড় হারে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৪৬ পয়সা। সম্পদ মূল্যায়নসহ শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ৩০ টাকা ৪৯ পয়সা।


শেয়ারবার্তা / মামুন

কোম্পানী সংবাদ এর সর্বশেষ খবর

উপরে